01711-453453,01309-112403

নীতিমালা ও নির্দেশাবলী

শিক্ষার্থীদের জন্য নির্দেশনা-


১. প্রত্যেক অভিভাবককে নিজ সন্তানের নিয়মিত লেখাপড়ার প্রতি সচেতন থাকতে হবে। প্রত্যেক ছাত্র-ছাত্রিকে প্রতিদিন ৫-৬ ঘন্টা মনোযোগসহ নিজে লেখাপড়া করতে হবে।না হবে ।
২. ক্লাস শুরু হওয়ার কমপক্ষে ১৫ মিনিট পূর্বে ক্লাশে উপস্থিত থাকতে হবে ।
৩. যে কোন ছাত্র-ছাত্রির অবাধ্যতা, পাঠে অনীহা, অনিয়মিত উপস্থিতি, অশোভন উশৃংখলতা বা সার্বিক উন্নতির পরিপন্থী কোন আচরণ দৃষ্টিগোচর হলে/লক্ষ্য করা গেলে তাকে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করা হবে এর পরবর্তীতে হলে ছাড়পত্র (ঞ.ঈ.) দেওয়া হবে।
৪. কোন ছাত্র-ছাত্রি ইচ্ছাকৃতভাবে বা উশৃংখলতাবশত: স্কুলের কোন আসবাবপত্র বা সম্পদ নষ্ট করলে তাকে উহার ক্ষতিপূরণ না করা পর্যন্ত স্কুল উপস্থিত থাকা হতে সাময়িকভাবে বিরত/স্থগিত রাখা হবে ।
৫. কোন ছাত্র-ছাত্রি কোন আপত্তিকর বই, পুস্তিকা বা সাময়িক পত্রিকা স্কুল আনতে বা সাথে রাখতে পারবে না।
৬. কোন ছাত্র-ছাত্রির নামে প্রেরিত চিঠিপত্র পরীক্ষণের সর্বময় ক্ষমতা প্রধান শিক্ষকের থাকবে ।


স্কুলের পোষাক-


১। স্কুলের কার্য দিবসে এবং স্কুলের যাবতীয় অনুষ্ঠানে প্রত্যেককে স্কুলের নির্ধারিত ব্যাজ, আইডি কার্ড, পোষাক, জুতা পরিধান করতে হবে।
২। কোন ছাত্র-ছাত্রি অনিবার্য কারণে ঈড়ষষবমব টহরভড়ৎস পরিধানে ব্যর্থ হলে কেবল উবধহ ড়ভ উরংপরঢ়ষরহব এর অনুমতি নিয়ে শ্রেণিতে বসতে পারবে।


অনুপস্থিত -


১। যে কোন ধরনের ছুটির প্রয়োজনে পিতা-মাতাকে কারণ উল্লেখ করে ছাত্র-ছাত্রির আবেদন পত্রে স্বাক্ষর করতে হবে। ছোট-খাট কোন কারণে বা সামাজিক অনুষ্ঠানের জন্য ছুটি পাবে না।
২। নিজ ভাই/বোন বা নিকট আত্মীয়ের বিয়েতে একজন ছাত্র/ছাত্রি সর্বো”চ ০১ দিনের ছুটি পাবে। বেশি দিনের ছুটি পেতে প্রধান শিক্ষকের পূর্বানুমতি লাগবে।
৩। কঠিন কোন রোগে আক্রান্ত ছাত্র/ছাত্রি সুস্থ হলে চিকিৎসকের প্রত্যয়নপত্রসহ ছুটির আবেদন করতে হবে। হঠাৎ অসুস্থতার সংবাদ যথাশিঘ্র কলেজ কর্তৃপক্ষকে জানাতে হবে।